হঠাৎ করেই বিরল প্রজাতির ‘জীবনদায়ী’ ফুলের,তারপর কি ঘটল দেখুন

মানুষের কারনে বিপন্ন হতে বসা এক জীবনদায়ী ফুল হঠাৎ করেই দেখা দিল নদীয়ার এক ব্যাক্তির বাড়ির বাগানে।স্বভাবতই যা নিয়ে আনন্দিত পরিবারের সকলে।

0
488
image source - google

দা টাইমস অফ কলকাতা ডেস্ক – মানুষেরই কারনে বিপন্ন হয়ে যাওয়া এক বিরল্প্রজাতির ফুলের দেখা মিলল নদীয়ার মাটিতে।যে ফুল টাকে অনেকে ‘জীবনদায়ী’ পদ্মও বলে।এটি মুলত উত্তর মায়ানমার,দক্ষিন-পশ্চিম চীন ও ভারতের উত্তরাখণ্ডেই মুলত দেখা যায়।এই ফুলটি ব্রহ্মকমল নামেই ডাকা হয়।

এই ফুলটি মুলত অনেক উঁচুতে পাথরের ফাকে ফাকে,সবুজ ঘাসের মধ্যে দেখা যায়।ভারতের উত্তরাখণ্ডের বেশ কিছু জায়গাতে ব্রহ্মকমল দেখা জায়।এই ফুল বিলুপ্ত হওয়ার কারন হল প্রচুর পরিমান ঔষধি গুনাগুন পাসাপাসি মন্দিরের পুজোর জন্য কালো বাজারে প্রচুর পরিমান এই ফুল বিক্রি হয়।

আজ নদীয়ার শান্তিপুর ব্লকে বাগআঁচড়া বাজার পারা অঞ্চলে এক বাড়িতে এই ফুল দেখা যায়।বাড়ির মালিকের নাম অদ্বৈত প্রামাণিক।স্বভাবতই এই ফুল দেখার পরে পুজা অর্চনা আরম্ভ হয়ে যায় তার বাড়িতে।

তার মেয়ে মামনি বলেন,গত বছর ভাইফোঁটায় তার মাসতুতো দাদা যে কর্মসূত্রে মহারাষ্ট্রে থাকেন,তিনি একটি পাতা দেন ভাইফোঁটার উপহার হিসাবে।এবং বলেন যে টা বাগানে পুতে দিতে।প্রায় কয়েক মাসে আপন খেয়ালে বেরে উঠে আজ তার কুরি প্রস্ফুটিত হয়েছে।যা সত্যি সত্যিই একটা সারপ্রাইজ বাড়ির লোকের কাছে।

আর পুজা অর্চনা প্রসঙ্গে মামনি দেবী বলেন,মা থাকুমার বিশ্বাস এবং ভক্তির প্রতি মর্যাদা  দিতেই তাদের এই আয়োজন।আর এরকম একটা জীবনদায়ী ফুল বাড়ির উঠোনে প্রস্ফুটিত হলে কার না আনন্দ হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here