করোনার থাবা-এবার পুরীর সুবিশাল রথ টানবেন গজরাজ!

0
1130
Image-GOogle

করো’না ভাই’রাস থাবা বসিয়েছে গোটা দেশে। প্রভাব পড়েছে উৎসব অনুষ্ঠানেও। করো’না ভাই’রাসের কারণে এবার পুরীর রথযাত্রীয় ব্রাত্য পূন্যার্থীরা। তাই এবার পুরীর জগন্নাথের সুবিশাল রথ এবার টানবে হাতিতে। এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে জেলা প্রশাসন। তবে রাজ্য সরকার সেই প্রস্তাবে মান্যতা দেবেন কিনা তা এখনও চূড়ান্ত হয়নি।

সীমিত সংখ্যক মানুষের পক্ষে সেই বিশাল রথ টেনে নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। রবিবার ওডিশা সরকারকে এমনই নির্দেশ দিয়েছে ওডিশা হাইকোর্ট। পুরীতে ভক্তদের প্রবেশে নিষেধজ্ঞা জারি করা হয়েছে।কেবলমাত্র নিয়ম বহাল রাখতেই কোনক্রমে অনুষ্ঠিত হবে জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা। ফলে ভক্তদের থেকে ভগবানকে দূরে রাখলেও রথ টানবে কে? এই প্রশ্ন ভাবিয়ে তুলেছিল মন্দির কর্তৃপক্ষকে।

Image-Google

তাই মুশকিল আসানে ওড়িশা হাই কোর্ট রাজ্য সরকারের কাছ প্রস্তাব পেশ করে যে, পুরীতে এই বছর রথযাত্রা অনুষ্ঠিত হলে কোনও যন্ত্র বা হাতিদের দিয়ে টানার ব্যবস্থা করতে হবে।রথযাত্রা উপলক্ষ্যে প্রতি বছর পৃথিবীর নানা দেশ থেকে লক্ষ লক্ষ মানুষ ভিড় করেন পুরীতে। রথের রশিতে টান দিতে রীতিমত হুড়োহুড়ি পড়ে যায় ভক্তদের মধ্যে।

প্রভু জগন্নাথ দেবের মন্দির থেকে মাসির বাড়ি পর্যন্ত অঞ্চল জুড়ে বলবৎ থাকবে ১৪৪ ধারা। আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখতে হাজারের বেশি পুলিশ মোতায়েন থাকবে ওই অঞ্চলে।তিনটি হাতি রাখার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

১৬ জুন মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়কের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন মন্দির সোসাইটির সদস্যরা।”ইতিমধ্যেই পর্যটকদের কথা ভেবে পুরীর সমুদ্র সৈকতে হোটেল খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে পর্যটকরা তিন দিনের বেশি হোটেলে থাকতে পারবেন না। এমনকি রথযাত্রার দিন পর্যটকরা আসতে পারবেন না পুরীর জগন্নাথ দেবের মন্দির চত্বরে, বলেও জানানো হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here