এবছর রাতজেগে কিভাবে ঠাকুর দেখবেন? উপায় বলে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী!

0
2021
Image-Google

দা টাইমস অফ কলকাতা ডেস্ক- করোনা আবহে এবার বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব দুর্গাপুজো হবে কি না সে নিয়েও প্রশ্ন উঠেছিলো। কিন্তু সেসব চিন্তাভাবনা কাটিয়ে মায়ের আগমনে সেজে উঠছে একের পর এক মণ্ডপগুলো।

কিন্তু এই আবহে ঠাকুর দেখা কিভাবে? এদিন সেই বিষয়ে সবাইকে উপায় বলে দিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিলেন করোনা পরিস্থিতির মধ্যে পুজোর আয়োজনে নিয়ম মেনে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। তবে রাত জেগে ঠাকুর দেখায় থাকছে না কোনও রকম বাধা। মমতা বললেন , ‘তৃতীয়া থেকে একাদশী পর্যন্ত রাত জেগে ঠাকুর দেখা যাবে। তার ব্যবস্থা করবে পুলিশ।’

  মুখ্যমন্ত্রী ক্লাবগুলিকে খোলামেলা মণ্ডপ করতে ও চারপাশটা খালি রাখতে পরামর্শ দেন,    সাইড ঢাকতে হলে ছাদ খোলা রাখুন। ছাদ ঢাকতে হলে অন্যদিকে খোলা রাখুন।”যাতে দর্শনার্থীরা কিছুটা দূরত্ব বজায় রেখে ঠাকুর দেখতে পারে সেভাবে মণ্ডপ করতে পরামর্শ দেন তিনি।

প্রতি দর্শনার্থীদের মাস্ক পরতে হবে। প্রতিটি পুজো মণ্ডপে স্যানিটাইজের ব্যাবস্থা রাখতে হবে, সাথে হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে। ক্লাবের সমস্ত কর্মকর্তাদের মাস্ক পরতে হবে।প্রয়োজনে ফেস শিল্ড পরতে হতে পারে।

এবার প্রসাদ বিতরনএর সময় ও অঞ্জলি দেবার সময়েও সতর্কতা মেনে চলতে হবে । বাড়ি থেকেই ফুল বেলপাতা সহ অঞ্জলির সামগ্রী আনার পরামর্শ দেন তিনি। প্রসাদ বিতরনের সময় মানতে হবে শারীরিক দূরত্ব!

শারদীয়া পুরষ্কার বিতরণের সময়েও কিছু নিয়ম মাথায় রাখতে হবে। এক মন্ডপে একাধিক পুরষ্কার বিতরণের জন্যে একাধিক সংস্থার বিচারকরা যাবেন না। সকাল ১০টা থেকে দুপুর ৩টের মধ্যে পুরষ্কার বিতরন পালা সারতে হবে। এই ক্ষেত্রে ২টোর বেশি গাড়ি নিয়ে তারা যেতে পারবেন না।

ছোট ছোট দলে ভাগ করে সিদুর খেলা সারতে হবে। বিসর্জনের নিয়ম ঘোষণা করে মমতা বলেন, এক সঙ্গে সমস্ত পুজো বিসর্জন দেওয়া যাবে না। থানার আইসিদের সেই দিকে নজর রাখতে হবে। বিসর্জনে শোভাযাত্রা চলবে না।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here